সেনবাগের বীরকোট পাটোয়ারী বাড়ী মারাত্মক হুমকির মুখে সমাজ ও পরিবেশ ব্যবস্থা।

সেনবাগের বীরকোট পাটোয়ারী বাড়ী মারাত্মক হুমকির মুখে সমাজ ও পরিবেশ ব্যবস্থা।

 

শাহাদাত হোসাইন স্বপন: নোয়াখালী সেনবাগ উপজেলা ২নং কেশার পাড় ইউনিয়ন বীর কোট গ্রামের ৬নং ওয়ার্ড পাটোয়ারি বাড়ি পরিবেশ দূষণের অন্যতম প্রধান কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

অনিয়ন্ত্রিত খোলা পায়খানা বর্তমান প্রেক্ষাপটে সমাজ ব্যবস্থাকে করেছে কলঙ্কিত। আলো-বাতাসে ভেসে বেড়ানো পরিবেশ দূষণ কঠিন রোগের জীবাণু বহন করে বেড়াচ্ছে।

বিষয়টি মানব সম্প্রদায়ের জন্য হুমকি স্বরূপ। অত্র বাড়ির কিছু অসাধু ব্যক্তি খোলা পায়খানা ব্যবহারে সঠিক পন্থা অবলম্বন না করায়, পাটোয়ারী বাড়ির প্রতিবেশীরা আশঙ্কাজনক বিপদ এড়াতে পড়েছেন বেকায়দায়।

বাড়ির ভিতরে খোলা পায়খানা ব্যবহারের ফলে প্রতিবেশী এবং পরিবেশ দুটোই মারাত্মক হুমকির মুখে। রক্ষা পাচ্ছেনা গৃহপালিত পশু সম্প্রদায়ও।

এখানে জমে থাকা বিষাক্ত পানি খাদ্য হিসেবে গ্রহণ করে মারা যাচ্ছে হাঁস মুরগি কবুতর হুমকির মুখে রয়েছে গরু এবং ছাগল।

বিষয়টি নিয়ে বহুবার আলোচনা সাপেক্ষে মালিক পক্ষকে করণীয় কার্যক্রমের বিষয়ে অনুরোধ করা হলেও তারা নীরব ভূমিকা পালন করছেন।

নিরুপায় হয়ে বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য সাংবাদিকদের সহযোগিতা কামনা করেন ওই বাড়ির অন্য সব প্রতিবেশীর পক্ষ থেকে সেলিম পাটোয়ারী, পিতা মৃত আরব আলী।

তিনি জানান বিষয়টি অত্যন্ত দুঃখজনক একজন সচেতন ব্যক্তি যদি প্রতিবেশীদের দুঃখ-কষ্টে পাশে না থাকে, তাহলে অশিক্ষিত মূর্খ লোকদের কাছ থেকে কি আশা করা যায়।

অর্থ আর ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে সবকিছু ধামাচাপা দেওয়া যায় না। একটি বাড়ির ভিতরে কিভাবে খোলা পায়খানার মলমূত্র জমা হয়ে

থাকে বিষয়টি মেনে নেওয়া যায় না। এখান থেকে প্রতিনিয়ত তৈরি হচ্ছে মরণব্যাধি ডেঙ্গুর ভাইরাস সহ আরো জটিল ও কঠিন রোগের উৎপত্তি।

বৃষ্টি বাদল হলেই দুর্গন্ধে ঘরে থাকা অসম্ভব হয়ে পড়ে। যারা এই পরিবেশ দূষণের সাথে জড়িত, তারা কিভাবে বাড়িতে কিংবা ঘরে থাকে, বিষয়টি আমার বোধগম্য হয় না।

সেলিম পাটোয়ারী আরো বলেন, একই বাড়িতে নিজের আপনজন পরিবেশ-পরিস্থিতি কে মারাত্মক হুমকির মুখে ঠেলে দিয়েছে তারা। তার কথায় আরো প্রকাশ পায়, যারা এই কর্মকাণ্ডে জড়িত রয়েছেন তাদের মধ্যে অন্যতম-

তফজল পাটোয়ারী, পিতা মৃত: আরব আলী। শফি পাটোয়ারী, পিতা মৃত: নোয়াব আলী। বেলাল পাটোয়ারী, পিতা মৃত: মকবুল আহাম্মেদ। তাদের আর্থিক অবস্থা মোটামুটি সচল থাকা সত্বেও।

বিষয়টি নিরসনে সুস্থ সুন্দর পরিবেশ উপহার দেওয়ার লক্ষ্যে কার্যকরী কোনো ভূমিকা নেই তাদের। আবর্জনার বিশাল এক নর্দমায় পরিণত হয়েছে বাড়ির আঙিনা।

বাড়িতে বসবাসরত পরিবারগুলো দূষণযুক্ত পরিবেশে থাকাটা আশঙ্কাজনক বিপদের কারণ মনে করছেন। বিষয়টি তাদেরকে বহুবার বলা হলেও কর্ণপাত করছেন না কেউ।

অথচ বৃষ্টি হলেই জায়গাটি মারাত্মক পরিবেশ দূষণের কারণ হয়ে দাঁড়ায়। দুর্গন্ধ জনিত কারণে ঘরে বসবাস করা মুশকিল হয়ে পড়ে।

আবহাওয়া এবং আলো বাতাসে সাথে একত্রিত হওয়া ময়লা-আবর্জনার স্তুুপ বিভিন্ন রোগের ভাইরাস বহন করে। ফলে সুস্থ মানুষও অসুস্থ হয়ে পড়ে।

পরিবেশ দূষণের এই ভয়াবহতার কারণে প্রতিনিয়ত অসুস্থ ব্যক্তি কে ডাক্তারী চিকিৎসা প্রধান করতে হয়। পরিবার, পরিবেশ,

সমাজ ব্যবস্থা, সুস্থ-সুন্দর ও পরিপাটি জীবনের নিশ্চয়তার উদ্দেশ্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রকল্প বাস্তবায়নের মধ্য দিয়ে সফলতার শীর্ষ চূড়ায় উঠার যে স্বপ্ন দেখছেন।

তার বিপরীত প্রতিফলন ঘটিয়ে যাচ্ছেন এই বীর কোট পাটোয়ারি বাড়ির কিছু লোকজন। তাই পরিবেশ দূষণ কলঙ্কিত প্রক্রিয়ার সাথে জড়িত ব্যক্তিদের কে পরিবেশ বান্ধব করার বিষয়ে ব্যবস্থাপত্র গ্রহনের জন্যে দৃষ্টি আকর্ষণ করছি

অত্র ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মহোদয় এবং ৬নং ওয়ার্ড প্রতিনিধি মহোদয়ের। পাশাপাশি বিষয়টির মারাত্মক ক্ষতিকারক দিক বিবেচনা করে। খোলা পায়খানা এবং বাড়ির আঙ্গিনায় মলমূত্র আবর্জনার স্তুপ নিরসনে বিকল্প বিধি-

ব্যবস্থা গ্রহণের জন্যে এই অপকর্মের সাথে জড়িত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়ে খুব দ্রুত বিরাজমান সমস্যার সমাধানে ভূমিকা রাখার আহ্বান জানাচ্ছি সেনবাগ থানা অফিসার ইনচার্জ মিজানুর রহমান মহোদয়ের এবং উপজেলা ইউ এন ও মহোদয়ের।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazartvsite-01713478536