নবাবগঞ্জে কবুতরের খামার থেকে মাসিক ৫০ হাজার টাকা আয়

নবাবগঞ্জে কবুতরের খামার থেকে মাসিক ৫০ হাজার টাকা আয়

নবাবগঞ্জ দিনাজপুর। দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে কবুতরের খামার করে তা থেকে মাসিক ৫০ হাজার টাকা আয় করছেন মোঃ শাফিউল ইসলাম খন্দকার নামে এক কবুতর খামারের মালিক। শাফিকুল ইসলাম খন্দকার উপজেলার শালখুরিয়া ইউনিয়নের বেড়ামালিয়া গ্রামের মৃত আজিজুল হক খন্দকারের ছেলে।তিনি বর্তমানে উপজেলার দলার দরগা বাজারে বাস করেন এবং সেখানেই তার কবুতরের খামার গড়ে তুলেছেন। শাফিউল জানান বাজারে তার বড় ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ছিল। সেই ব্যবসা গুটিয়ে সেখানে তিনি কবুতরের খামার করেছেন। তিনি জানান ১৯৯৯ সালে ১০ জোড়া দেশি গিরিবাজ লোটন জাতের কবুতর দিয়ে তার কবুতর পালনের যাত্রা শুরু হয়। ২০১৭ সালে তার ওই কবুতরের সংখ্যা দাঁড়ায় ১০০ জোড়ায়। এরপর ২০১৭ সাল থেকে যোগ হয় ৩০ জোড়া ফেন্সি জাতের কবুতর। ২০২০ সালে তার খামারে কবুতরের সংখ্যা দাাঁড়ায় ২০০ জোড়ায়।যার মূল্য প্রায় ১৫ লাখ টাকা। তার কবুতরের খামারে কিং, মডেনা,মারটেজ,জ্যাকোবিন, বোখারা, স্ট্রেচার, লাহরী,মুন্ডিয়ান, বোম্বাই, লংফেস,বিউটিহোমা,ওরিয়েন্টাল,করমনা, বাগদাদী ও হোমা সহ ৩০ জাতের কবুতর রয়েছে। তার খামারে ৭০০ টাকা জোড়া থেকে ১ লাখ টাকা জোড়া মূল্যের কবুতর রয়েছে। যা থেকে বেচা কেনা করে সব খরচ বাদ দিয়ে তিনি প্রতিমাসে ৫০ হাজার টাকা আয় করছেন। তিনি আরও জানান তার খামারে কবুতরকে খাদ্য হিসাবে গম,ভ’ট্টা,হেন্টি,বাজরা,সূর্য়্যমূখী ও কুসুম ফুলের বিচি, সাদা ও কালো মটর ডাল,মসুর ডাল ও ছোলা দিয়ে থাকেন। এতে তার প্রতিমাসে ১৫ হাজার টাকা ব্যয় হয়।কবুতরের কোন অসূখ বা সমস্যা দেখা দিলে তিনি নিজের অভিজ্ঞতায় ও অন্য স্থানের খামারীদের নিকট পরামর্শ নিয়ে ব্যবস্থা গ্রহন করেন। উপজেলা এলাকায় এরকম কতটি কবুতরের খামার রয়েছে জানতে চাইলে উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা নাসিরুল ইসলাম জানান তিনি এলাকার বাইরে রয়েছেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazartvsite-01713478536