বাবু বাজারে খেলার মাঠ দখল করে গাড়ি পার্কিং

বাবু বাজারে খেলার মাঠ দখল করে গাড়ি পার্কিং

ডেস্ক রিপোর্ট : পুরান ঢাকার বাবুবাজার ব্রিজের নিচের খেলার মাঠটি দখল করে গাড়ি পার্কিং করা হয়েছে।গত সোমবার গভীর রাতে মাঠের গ্রিল ও সীমানা দেয়াল ভেঙ্গে কভার্ড ভ্যান, পিক আপ ভ্যান ও ময়লার কন্টেইনার রেখে দেয়া হয়।মাঠটি শিশুদের খেলার জন্য উম্মক্ত করে দিতে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র বরাবর আবেদন করেছেন বাবু বাজার বাদামতলী সমাজ কল্যাণ সংসদের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন রনি।সূত্র জানায়, জীর্ণশীর্ণ পুরান ঢাকায় শিশু কিশোরদের জন্য কোনো খেলার মাঠ না থাকায় বুড়িগঙ্গা দ্বিতীয় সেতুর নিচে বাবুবাজার অংশে সড়ক ও জনপদ বিভাগের অনুমতি নিয়ে বাবু বাজার বাদামতলী সমাজ কল্যাণ সংসদের সাধারণ সম্পাদক ও ব্যবসায়ীদের উদ্যোগে একটি ছোট মাঠ সংস্কার করে শিশু-কিশোরদের খেলার জন্য উম্মক্ত করা হয়।ওই সময় স্থানীয় সংসদ সদস্য হাজী মো. সেলিম মাঠটি উদ্বোধন করেন। মাঠের একপাশে ব্রিজের পিলারে বাংলাদেশের পতাকা শোভিত করা হয়। পরের বছর ওই ছবিটি একটি শীর্ষ স্থানীয় দৈনিকের বাৎসরিক ক্যালেন্ডারের প্রচ্ছদে স্থান পায়।স্থানীয় ব্যবসায়ীদের সহযোগিতায় প্রায়ই বিভিন্ন ধরনের ক্রীড়া টুর্ণামেন্ট আয়োজন করা হতো ওই মাঠে। কিন্তু গত দুই বছর যাবৎ ওই মাঠটি দখল করেতে মরিয়া হয়ে অনেকেই। একাধিকবার রাতের আঁধারে মাঠের সীমানা গ্রিলও ভেঙ্গে ফেলা হয়।কিন্তু ক্রীড়ামোদী মানুষের তৎপরতায় সে যাত্রায় মাঠটি রক্ষা পেলেও গত সোমবার গভীর রাতে স্থানীয় কাউন্সিলর এম এ মান্নানের সহযোগী জাহাঙ্গীর শিকদার দলবল নিয়ে ভারী যন্ত্র দিয়ে মাঠের গ্রীল ভেঙ্গে ট্রাক, পিকাপ ভ্যান ও কয়েকটি ময়লার কন্টেইনার রেখে মাঠটি দখল করে নেয়। এতে স্থানীয়দের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় কয়েকজন চাউল আড়ৎদার যুগান্তরকে জানান, অত্র এলাকাটি একটি জনবহুল এলাকা। শিশুদের দম ফেলার মতো কোথায় একটু খালি যায়গা নেই। স্থানীয় ব্যবসায়ীদের উদ্যোগে সড়ক ও জনপথ বিভাগ থেকে অনুমতি নিয়ে নিজেদের অর্থায়নে মাঠটির উন্নয়ন করে বছরব্যাপী বিভিন্ন ক্রীড়া প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হয়। বিগত দুই তিন বছর থেকে পরিবহন চাঁদাবাজরা মাঠ দখল করার চেষ্টা করেও সফল হয়নি। কিন্তু গতকাল স্থানীয় কাউন্সিলরের সহযোগিতায় তারা মাঠটি দখল করে নিয়েছেন বলে অভিযোগ করেন।বাবু বাজার বাদামতলী সমাজ কল্যাণ সংসদের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন রনি যুগান্তরকে বলেন, এলাকার শিশুদের খেলাধুলার জন্য আমরা এ মাঠটি তৈরি করেছি। কিন্তু দীর্ঘদিন থেকে পরিবহন চাঁদাবাজরা মাঠটি দখলে নিতে চেষ্ঠা করে। অবশেষে তারা গত সোমবার রাতে সফল হয়েছে। তারা সম্পূর্ণ ব্রিজের নীচে দখল করে পরিবহন চাঁদাবাজরা স্ট্যান্ড বানিয়ে রাখলেও এই সমান্য যায়গাটুকু দখল করে নিয়েছে। যা অত্যন্ত দুঃখজনক। মাঠটি অতি দ্রুত শিশুদের খেলার জন্য উম্মক্ত করে দিতে সিটি কর্পোরেশনের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ৩২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর এমএ মান্নানের মুঠো ফোনে এ বিষয়ে বক্তব্য জানতে বারবার ফোন করা হলেও তাতে তিনি সাড়া দেননি। পরে প্রতিবেদকের পরিচয় ও অভিযোগের বিষয় উল্লেখ করে খুদে বার্তা পাঠানো হলেও তিনি কোনো উত্তর দেননি।ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা রাসেল সাবরিন যুগান্তরকে বলেন, মাঠ দখল করতে কাউকে অনুমতি দেয়া হয়নি। আমরা কালই অভিযানে বের হব এবং দখল হয়ে হয়ে থাকলে এটি পুনরুদ্ধার করে শিশুদের জন্য উম্মক্ত করে দেব।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themesbazartvsite-01713478536